white logo top guideline

উন্নয়নশীল দেশের একজন উদ্যোক্তার কাজ কি?

উন্নয়নশীল দেশের শিল্পপ্রতিষ্ঠানে ব্যবসায়ের অগ্রগতির জন্য একজন উদ্যোক্তাকে বহুবিধ গুরুত্বপূর্ণ কার্যাবলি বা কাজ সম্পাদন করতে হয়। এসব কার্যাবলি সুষ্ঠু ও কার্যকরীভাবে গ্রহণ ও সমাপ্ত করার মাঝেই নির্ভর করে কারবারের সত্যিকারের সফলতা। ‍আজ আমরা জানব উন্নয়নশীল দেশের একজন শিল্পোদ্যোক্তার বা উদ্যোক্তার  কাজ কী? নিম্নে উদ্যোক্তার উল্লেখযোগ্য কার্যাবলি আলোচনা করা হলঃ

উন্নয়নশীল দেশের উদ্যোক্তার কার্যাবলি বা কাজ

১। ব্যবসায় উদ্যোগ গ্রহণ :

একজন উদ্যোক্তার প্রাথমিক কাজ হল ব্যবসায়ের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা। ব্যবসায় উদ্যোগের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের পূর্বে উদ্যোক্তাকে নিম্নোক্ত বিষয়সমূহ গুরুত্বসহকারে বিচার বিশ্লেষণ করতে হয় :

আরও পড়ুন>>> শিল্পোদ্যোক্তা/উদ্যোক্তার শ্রেণিবিভাগ।

(ক) ব্যবসায়ের প্রকৃতি নির্ধারণ;

(খ) ব্যবসায়ের জন্য সঠিক প্রযুক্তি নির্বাচন;

(গ) ব্যবসায় সংগঠন ও পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় মূলধনের পরিমাণ নির্ধারণ,

(ঘ) সরকারের শিল্পনীতি, শ্রমনীতি, করনীতি, আমদানি-রপ্তানি নীতি ইত্যাদি সম্পর্কে বিচার-বিশ্লেষণ;

(ঙ)ব্যবসায়ের স্থান নির্বাচন ইত্যাদি।

২। ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত কার্যাবলি

কারবারের ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত কার্যাবলিকে উদ্যোক্তার একটি গুরুত্বপূর্ণ কার্য হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে।

নিম্নে উদ্যোক্তার কারবার ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত কার্যাবলি উল্লেখ করা হলঃ

(ক) কারবারের উদ্দেশ্য স্থাপন: কারবারের সঠিক উদ্দেশ এবং তার সাথে সংশ্লিষ্ট বিভাগসমূহের উদ্দেশ্য সুস্পষ্টভাবে নির্ধারণ করতে হয়।

(খ) নীতি নির্ধারণ: উদ্যোক্তাকে কারবারের ক্রয়-বিক্রয়, শ্রমিক-কর্মী ইত্যাদি ক্ষেত্রের নীতিসমূহ নির্ধারণ করতে হয়।

(গ) পরিকল্পনা প্রণয়ন: ব্যবসায়ের উদ্যোক্তাকে ব্যবসায়ের ভবিষ্যৎ ফলাফল সম্পর্কে সঠিক পরিকল্পনা প্রণয়ন করতে হয়। উক্ত পরিকল্পনায় গোটা কারবারের একটা পরিপূর্ণ চিত্র বা নকশা তুলে ধরতে হবে।

(ঘ) সাংগঠনিক কাঠামো নির্ধারণ: ব্যবসায়ের সাংগঠনিক কাঠামো নির্ধারণ করাও উদ্যোক্তার ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। উদ্যোকাকে শ্রমিক-কর্মীদের মধ্যে দায়িত্ব ও কর্তৃত্ব স্থির করতে হবে এবং সামঞ্জস্য রক্ষা করতে হবে।

(ঙ) নিয়ন্ত্রণ: ব্যবসায়ের নীতি ও পরিকল্পনা সঠিকভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে কি না উদ্যোক্তাকে তা সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে এবং প্রয়োজনীয় সংশোধনীমূলক ব্যবস্থাদি গ্রহণ করতে হবে।

(চ) নির্দেশনা, প্রেরণা ও সমম্বয়সাধন:  কারবার প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্যসমূহ বাস্তবায়নের জন্য শ্রমিক-কর্মীদেরকে প্রয়োজনীয় নির্দেশ প্রদান করতে হবে। শ্রমিক-কর্মীদেরকে উৎসাহিত ও অনুপ্রাণিত করার জন্য প্রেরণা দিতে হবে এবং সর্বোপরি প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন বিভাগ ও কর্মীদের বিভিন্ন কার্যাবলির মধ্যে সমন্বয়সাধনের ব্যবস্থা উদ্যোক্তাকেই করতে হয়।

৩। উদ্যোক্তার আরেকটি গুরুত্বপুর্ণ কাজ হল অর্থসংস্থান

উদ্যোক্তাকে ব্যবসায় সংগঠনের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হয়। উদ্যোক্তা নিজস্ব তহবিল হতে অথবা ঋণ সংগ্রহের মাধ্যমে অথবা শেয়ার বিক্রয়ের মাধ্যমে কারবারের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থসংস্থানের ব্যবস্থা গ্রহণ করে থাকে।

৪। বাজারজাতকরণ

পণ্যসামগ্রী উৎপাদন বা সংগ্রহ করার পর পণ্যের বাজার ও চাহিদা সৃষ্টির জন্য উদ্যোক্তাকে পণ্য বাজারজাতকরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হয়। এর জন্য বিজ্ঞাপন, বিক্রয় ব্যবস্থার মান উন্নয়ন, গুদামজাতকরণ ও বাজার গবেষণা সংক্রান্ত কার্যাবলি সম্পাদন করতে হয়।

আরও পড়ুন>>> একজন সফল শিল্পোদ্যোক্তার বৈশিষ্ট্য ও গুণাবলি

৫। অফিস সংক্রান্ত কার্যাবলি

কারবার প্রতিষ্ঠানের অফিস সংক্রান্ত কার্যাবলি সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের উপর প্রতিষ্ঠানের সাফল্য অনেকাংশে নির্ভর করে থাকে। এজন্য উদ্যোক্তাকে কারবারের অফিস সংক্রান্ত কার্যাবলির সুষ্ঠু ব্যবস্থার উপর গুরুত্ব দিতে হয়।

৬। ঝুঁকি বহন

ব্যবসায়ের বিভিন্ন ক্ষেত্রে উদ্যোক্তাকে ঝুঁকি বহন করতে হয়। উদ্যোক্তার ঝুঁকি বহনের ক্ষমতা, সম্ভাব্য ঝুঁকিসমূহ পূর্বানুমান করার ক্ষমতা এবং তার সমাধানের ক্ষেত্র তৈরির উপরও ব্যবসায়ের সাফল্য অনেকাংশে নির্ভর করে থাকে।

৭। গবেষণা ও উন্নয়ন

উদ্যোক্তাকে বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বাজারে টিকে থাকার জন্য গবেষণা ও উন্নয়ন সংক্রান্ত কার্যাবলির জন্য কর্মসূচি গ্রহণ করতে হয়। গবেষণা ও উন্নয়নমূলক কার্যাবলি পণ্যের গুণগত মান বৃদ্ধি করে, ব্যয় হ্রাস করে এবং সর্বোপরি উদ্যোক্তাকে চূড়ান্ত সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করে। 

পরিশেষে বলা যায় যে, একজন উদ্যোক্তা উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে যেমন নিজের অগ্রগতিতে অবদান রাখতে পারে তেমনি পাশাপাশি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।

আরও পড়ুন>>>

Related Guideline

মেগার কি কত প্রকার মেগারের গঠন ও কার্যপ্রণালী

মেগার কি? কত প্রকার? মেগারের গঠন ও কার্যপ্রণালী

আমরা যে সকল বিষয়ে আলোচনা করব তা হল:-  মেগার কি? কাকে বলে? মেগার কত প্রকার ও কি কি? মেগারের গঠন ও কার্যপ্রণালী। মেগারের ব্যবহার। মেগার ভালো না খারাপ তা কিভাবে পরিক্ষা করা হয়? কিভাবে মেগার দ্বারা উচ্চ রেজিস্ট্যান্স পরিমাপ করতে হয়? ইত্যাদি বিষয়।

Full Guideline »

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Enable Notifications    OK No thanks