white logo top guideline

শিল্পোদ্যোগ ও ‍শিল্পোদ্যোক্তার ‍সংজ্ঞা

অর্থনৈতিক বিচারে বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল দেশ। জনসংখ্যায় ভরপুর এদেশে শিক্ষিতের হার খুবই কম। অন্যদিকে দেশের জনসংখ্যার একটি বড় অংশ বেকার। বেকার সমস্যাই এ দেশের উন্নয়ের পথে বাধা বলে অনেকে মনে করেন। দেশকে বেকারত্বের এ ভয়াবহ সমস্যা থেকে উদ্দ্যারের জন্য চাকরির বিকল্প হিসেবে ‍শিল্পোদ্যোগ কিংবা ব্যবস্যায় উদ্যোগের মাধ্যমে আত্মকর্মসংস্থান একটি গুরুত্বপূর্ণ উপায়। তাই অর্থনৈতিক উন্নয়ন বেগবান করার জন্য ব্যাপকহারে শিল্পোদ্যোক্তার প্রয়োজন।

শিল্পোদ্যোগ ও ‍শিল্পোদ্যোক্তার ‍সংজ্ঞা - Definition of Enterpreneurship and Enterpreneur Bangla

“শিল্পোদ্যোগ ও ‍শিল্পোদ্যোক্তা” শব্দ দুুুটির মধ্যে সম্পৃ্ক্ত হয়েছে আলাদা দুটি শব্দ, যেমন- উদ্যোগ ও উদ্যোক্তা। ”শিল্প”  শব্দের সাথে ”উদ্যোগ” যুক্ত হয়ে গঠিত হয়েছে ”শিল্পোদ্যোগ” (Enterpreneur)। তেমনি ”শিল্প” শব্দের ‍সাথে “উদ্যোক্তা” যুক্ত হয়ে গঠিত হয়েছে “শিল্পোদ্যোক্তা” (Enterpreneurship)। শিল্প বলতে কাজ বুঝায় আর এ কাজ যিনি করেন, তাঁকেই উদ্যোগক্তা বলে। আবার শিল্প বা কাজ করার জন্য যে উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়, তাকে শিল্পোদ্যোগ বলে। 

শিল্পোদ্যোগ ও ‍শিল্পোদ্যোক্তার ‍সংজ্ঞা - Definition of Enterpreneurship and Enterpreneur Bangla

শিল্পোদ্যোগ এর ‍সংজ্ঞা - Definition of Enterpreneurship Bangla

ইংরেজি “Enterpreneurship” শব্দের বাংলা অর্থ ‍ শিল্পোদ্যোগ। অর্থাৎ মুনাফা অর্জনের উদ্দেশ্যে ‍সম্পাদিত সব রকম উৎপাদন, বন্টন, ও শিল্পপ্রতিষ্ঠান স্থাপনের মাধ্যমে পরিচালনার সকল কার্যাবলিকে শিল্পোদ্যোগ বলে।

শিল্পোদ্যোগ এর কয়েটি উল্লেখযোগ্য ‍সংজ্ঞা :

ক) E.E. Hagen – এর মতে, “শিল্পোদ্যোগের কাজ হচ্ছে বিনিয়োগ ও উৎপাদনের সুযোগ সৃষ্টি, নতুন উৎপাদন প্রক্রিয়া শুরু করার জন্য একটি শিল্পপ্রতিষ্ঠান গঠন, মূলধন সংগ্রহ, প্রয়োজনীয় কাঁচামালের সংস্থান, নতুন উৎপাদন কৌশল, নতুন পণ্য উদ্ভাবন, কাঁচামালের নতুন উৎস সন্ধান এবং সর্বোপরি প্রতিষ্ঠানের দৈনিক কার্যাবলি পরিচালনার জন্য একজন দক্ষ ব্যবস্থাপক নির্বাচন করা।”

খ) Finner-এর মতে, “সৃজনশীল ও উদ্ভাবনী ইচ্ছার প্রতি সাড়া দেয়া এবং অর্থনৈতিক সুযোগকে কাজে লাগানো ও কাজের স্বীকৃতি প্রদানের ক্ষমতাই শিল্পোদ্যোগ।

গ) Robert D. Hisrich-এর মতে, শিল্পোদ্যোগ হল এমন একটি প্রক্রিয়া, যার মাধ্যমে আর্থিক, কায়িক ও সামাজিক ঝুঁকি অনুমান করে প্রয়োজনীয় সময় ও প্রচেষ্টাকে কাজে লাগিয়ে মূল্যবান কোন জিনিস তৈরি করা এবং ফলস্বরূপ আর্থিক সন্তুষ্টির পুরস্কার গ্রহণ করা।

ঘ) বসু ও মৌলিক – এর মতে, “শিল্পোদ্যোগ হল অর্থনৈতিক সুযোগকে কাজে লাগানো, প্রতিষ্ঠান স্থাপন এবং সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানকে লাভজনক করে তোলা।

পরিশেষে বলতে পারি যে, নতুন নতুন শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপন, নতুন কিছু উদ্ভাবন, ঝুঁকি গ্রহণ ইত্যাদির প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করার ইচ্ছা ও ক্ষমতাকে শিল্পোদ্যোগ বলে।

শিল্পোদ্যোক্তা এর সংজ্ঞা - Definition of Entrepreneur Bangla

উদ্যোক্তা ইংরেজি শব্দ, যা Entrepreneur (এন্টারপ্রিনিউর) হতে সৃষ্ট, যার অর্থ হল উদ্যোগ গ্রহণ করা। প্রকৃতপক্ষে, ‘Entrepreneur’ শব্দটি ফরাসি শব্দ ‘Entreprendre হতে উৎপত্তি হয়েছে। এর অর্থ হল কোন কিছু করার জন্য দায়িত্ব গ্রহণ করা। 

সহজ কথায়, যিনি বা যে ব্যক্তি উদ্যোগ গ্রহণ করেন, তাকেই উদ্যোতা বলা হয়। আরও স্পষ্ট করে বলা যায় যে, যে ব্যক্তি ব্যবসায় বা শিল্পপ্রতিষ্ঠান গঠনের নিমিত্তে উদ্যোগ গ্রহণ করে, তাকে বলা হয় শিল্পোদ্যোক্তা/ব্যবসায় উদ্যোক্তা।

উদ্যোক্তা একজন সংগঠক। তিনি ব্যবসায় বা শিল্প প্রতিষ্ঠার প্রাথমিক ঝুঁকি ও দায়দায়িত্ব বহন করেন এবং উৎপাদনের সমস্ত উপকরণ যথা- ভূমি, শ্রম, মূলধন, প্রযুক্তি ইত্যাদি সংগ্রহ ও একত্রিত করে ব্যবসায় বা শিল্প সংগঠন গড়ে তোলেন এবং সাফল্য অর্জন না হওয়া পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করেন।

বিভিন্ন অর্থনৈতিক, সামাজিক ও মনস্তাত্ত্বিক এবং প্রতিষ্ঠানের কার্যাবলির বিভিন্ন অবস্থার আলোকে বিভিন্ন পণ্ডিত ও মনীষীগণ দৃষ্টিকোণ থেকে উদ্যোক্তার সংজ্ঞা প্রদান করেছেন। নিম্নে কয়েকজন বিশিষ্ট লেখকের সংজ্ঞা উদ্ধৃত করা হলঃ

শিল্পোদ্যোক্তার প্রামাণ্য সংজ্ঞা:

(ক) অর্থনীতিবিদ ক্যানটিলন (Cantillon)-এর মতে, “শিল্পোদ্যোক্তা হচ্ছেন একজন, প্রতিনিধি (Agent), যিনি পণ্য উৎপাদনের লক্ষ্যে নির্দিষ্ট মূল্যে উপকরণসমূহ সংগ্রহ করেন এবং সেগুলোর সমন্বয়ের মাধ্যমে পণ্য প্রস্তুত করেন, যার  বিক্রয়মূল্য অনিশ্চিত।”

(খ) জোসেফ এ. সুমপিটার (Joseph A. Schumpeter) – এর মতে, “শিল্পোদ্যোক্তা এমন একজন ব্যক্তি, যিনি তাঁর সৃজনশীল ও উদ্ভাবনী শক্তি দ্বারা কোন প্রতিষ্ঠানের নেতৃত্ব দেন এবং উন্নয়নে গতিশীলতা সঞ্চার করেন।”

(গ) ডব্লিউ. এফ. গুচ (W.F. Gluech) – এর মতে, “উদ্যোক্তা হচ্ছেন এমন একজন ব্যক্তি, যিনি নতুন ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান গঠন করেন এবং কৃতকার্য না হওয়া পর্যন্ত প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে যান।”

(ঘ) জে.বি. সে (Jean Baptiste Say) -এর মতে, “শিল্পোদ্যোক্তা হচ্ছেন এমন একজন প্রতিনিধি, যিনি উৎপাদনের সকল উপাদান যেমন— ভূমি, শ্রমিক, সংগঠন ও মূলধন একত্রিত করে উৎপাদিত পণ্যের মূল্য এমনভাবে নিরূপণ করেন, যাতে করে উপকরণসমূহের ব্যবহার এবং মূলধন পুনর্গঠন নিশ্চিত হয় এবং শ্রমিকের মজুরি, মূলধনের সুদ ও ভূমির খাজনা পরিশোধ করা যায় এবং তার প্রত্যাশিত মুনাফার ব্যবস্থা হয়।”

(ঙ) জে.এস. মিলস (J.S. Mills) -এর মতে, “শিল্পোদ্যোক্তা হলেন সংগঠক, যিনি মেধাপূর্ণ কাজের পুরস্কার পেয়ে থাকেন।”

সুতরাং বলা যায় যে, শিল্পোদ্যোক্তা হলেন এমন একজন ব্যক্তি, যিনি স্বীয় উদ্যম বা প্রচেষ্টা, কর্মস্পৃহা, উদ্ভাবনী শক্তি ও প্রেরণার সাহায্যে একটি নতুন ব্যবসায় বা শিল্পপ্রতিষ্ঠান গঠন করে একে সাফল্যের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে আসার লক্ষ্যে উদ্যোগ গ্রহণ করেন।

Related Guideline

মেগার কি কত প্রকার মেগারের গঠন ও কার্যপ্রণালী

মেগার কি? কত প্রকার? মেগারের গঠন ও কার্যপ্রণালী

আমরা যে সকল বিষয়ে আলোচনা করব তা হল:-  মেগার কি? কাকে বলে? মেগার কত প্রকার ও কি কি? মেগারের গঠন ও কার্যপ্রণালী। মেগারের ব্যবহার। মেগার ভালো না খারাপ তা কিভাবে পরিক্ষা করা হয়? কিভাবে মেগার দ্বারা উচ্চ রেজিস্ট্যান্স পরিমাপ করতে হয়? ইত্যাদি বিষয়।

Full Guideline »

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Enable Notifications    OK No thanks